Skip to content

প্রেমময়ের প্রতি

অগাষ্ট 6, 2012

লিখেছেন: তাহমিনা মারিয়াম
lord-will_respond

আচ্ছা, এই যে তুমি এসেছ জেনেও আমি এতটা নির্লিপ্ত থাকি, অন্য কাজে অকারণ ব্যস্ত থাকি, প্রায়ই তো ঘুমিয়েই থাকি; তুমি রাগ করো না? একটুও না? রাগ করো না, সে আমি জানি। রাগ করলে বুঝি এভাবে প্রতি রাতে আসতে[১]? এসে ঠিক ভোর পর্যন্ত অপেক্ষা করতে?

থাক্ তবে, রাতের এই একান্ত সময়টুকু না হয় বাদই দিলাম। আমি যে তোমায় কথা দিয়েছি, অনেক কোলাহলে অনেক ব্যস্ততায়ও অন্তত পাঁচটি বার তোমার কাছে আসবো! আগে তো কথা দিয়েও কথা রাখতাম না। এখন যদিও বা চেষ্টা করি কথা রাখার… তবু ঠিকঠাক সময় কি দেই বল? ব্যস্ততা দেখিয়ে কি দ্রুত চলে যাই, তাই না? মাঝে মাঝে কিছুটা বিরক্তি নিয়েও আসি। তবু কেন তুমি আমায় ছেড়ে যাও না, অন্য সবার মতো?

কি স্বার্থপর আমি! বিপদে পড়লে ঠিকই তোমার কাছেই ছুটে আসি। এত যে অবহেলা করেছি তোমায়, একটি বারের জন্য ভাবি না। আর তুমিও কি আশ্চর্য! আমাকে কখনই ফিরিয়ে দাও না। যে সময়টুকু তোমায় অবহেলা করেছি, আঙুল তুলে দেখিয়ে দাও না একবারও[২]!

তবু কেন আমি স্বার্থপরই রয়ে যাই? বিপদ কেটে গেলে কেন আমি তোমাকে শুকনো একটা ধন্যবাদও দেই না? জানি সমাধান তুমিই দিয়েছ। বিপদ থেকে তুমিই করেছো উদ্ধার। বাহবাটা তাও কেন নিজের জন্যই তুলে রাখি সবসময়[৩]?

যখন সুখে থাকি, থাকি অভাবমুক্ত, কি সহজেই না কলার উঁচিয়ে বলি “সব ক্রেডিট আমার!”[৪] অক্রিতজ্ঞ এই আমার এত কাছে কেন থাক তবু?

কতবার প্রতিজ্ঞা করি, এই এইবার তোমার কথা মেনে চলবো। আর ভুল হবে না। শতবার প্রতিজ্ঞা করে সহস্রবার ভাঙি। আমার প্রতিটি নতুন প্রতিজ্ঞায় তবু তোমার কেন এত উচ্ছ্বাস[৫]?

ক্ষুদ্র আমি। তোমার সামনে হয়তো একটি পিঁপড়ের সমানও হব না। আমার তবে কেন এত অহঙ্কার? সবই তো তোমার দেয়া। তবু আমি চারপাশটা এত আমিময় করেছি কি করে? কেউ ছিল না যখন, তুমিই ছিলে। যখন কেউ থাকবে না, তুমিই রবে[৬]। তাহলে কেন জীবনটাকে ভরছি শত মিথ্যে মরীচিকায়?

পথ তো তুমিই দেখিয়েছিলে। পথ ভুলে বারবার কেন দূরে সরে যাই তবে? তুমি তো লুকিয়ে রাখনি কিছুই। কি স্পষ্ট করে বলে দিয়েছ সব[৭]! তবু কেন ভুলি ঠুনকো প্রলোভনে? তুমিই তো লক্ষ্য। ফিরে তো যেতে হবে তোমারই কাছে[৮]! জীবনের ছোট্ট সব ক্ষণস্থায়ী লক্ষ্যগুলো নিয়ে এত মত্ত হয়ে যাই কেন তোমায় ভুলে? সকল অপূর্ণতায় তোমাকেই কেন দুষী? তুমি তো দিয়েছ সবই। যা চেয়েছি তার চেয়ে ঢের বেশি! অবাধ্য এই মস্তক কেন তবু হয় না নত?

কিছুই দেইনি তোমায়। যা কিছু রেখেছি তুলে, সযত্নে, সেওতো আমারই জন্য; অনন্ত কালের পাথেয়! জানি তুমি অভাবমুক্ত। জানি তুমি কারো মুখাপেক্ষী নও এতটুকু। আমার অবাধ্যতায় কি-ই বা ক্ষতি তোমার [৯]? তবু কেন প্রতি রাতে এভাবে নেমে আসো? অকৃতজ্ঞ, অবাধ্য এই আমি একটু চোখ দুটো মেলে অনেক আলসেমি নিয়ে উঠে দাঁড়াবো বলে, কেন এভাবে ডাক? এত ফিরিয়ে দেই, তবু কেন আসো? প্রেমময়* তুমি, এত কেন ভালোবাসো; বল[১০]?


…………………………………..

* আল ওয়াদুদ– >প্রেমময়

১. The Prophet (sal Allahu alaihi wa sallam) said: “The Lord descends every night to the lowest heaven when one-third of the night remains and says: ‘Who will call upon Me, that I may answer Him? Who will ask of Me, that I may give him? Who will seek My forgiveness, that I may forgive him?’” [Sahih Al-Bukhari and Muslim]

২. Is He [not best] who responds to the desperate one when he calls upon Him and removes evil and makes you inheritors of the earth? [Qur’an: 27: 62]

৩. And when affliction touches man, he calls upon Us, whether lying on his side or sitting or standing; but when We remove from him his affliction, he continues [in disobedience] as if he had never called upon Us to [remove] an affliction that touched him. [Qur’an: 10: 12]

৪. … If We give him a taste of favor after hardship has touched him, he will surely say, “Bad times have left me.” Indeed, he is exultant and boastful- [Qur’an: 11: 10]

৫. Say: O my Servants who have transgressed against their souls! Despair not of the Mercy of Allah: for Allah forgives all sins: for He is Oft-Forgiving, Most Merciful. [Qur’an: 39: 53]

৬. He is the First (nothing is before Him) and the Last (nothing is after Him)… [Qur’an: 57: 3]

৭. And We have sent down to you the Book as clarification for all things and as guidance and mercy and good tidings for the Muslims. [Qur’an: 16: 89]

৮. Indeed we belong to Allah , and indeed to Him we will return. [Qur’an: 2: 156]

৯. O mankind! It is you who stand in need of allah, but Allah is Rich (Free of all wants an needs), Worthy of all praise. [Qur’an: 35: 15]
Allah-us-Samad (The Self-Sufficient Master, Whom all creatures need, He neither eats nor drinks). [Qur’an: 112: 2]

১০. And ask forgiveness of your Lord and turn unto Him in repentance. Verily, my Lord is Most Merciful, Most Loving. [Qur’an: 11: 90]

Advertisements
One Comment leave one →
  1. শাহরিয়ার নূর permalink
    অগাষ্ট 27, 2013 2:24 অপরাহ্ন

    কেননা কেবল তিনিই তো আমায় সবচেয়ে বেশি ভালোবাসে

আপনার মন্তব্য রেখে যান এখানে, জানিয়ে যান আপনার চিন্তা আর অনুভুতি

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s

%d bloggers like this: